bdstall.com

টয়োটা করোলা গাড়ির দাম

টয়োটা করোলা হচ্ছে জাপানী কোম্পানির উৎপাদিত কমপ্যাক্ট ডিজাইনের গাড়ি। সারা বিশ্বের সাথে বাংলাদেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং সর্বাধিক বিক্রিত টয়োটা করোলা গাড়ি। করোলা গাড়ি সেডান, হ্যাচব্যাক এবং ওয়াগন সহ বিভিন্ন বডি ডিজাইনের পাওয়া যায় পাশাপাশি নির্ভরযোগ্যতা, জ্বালানি দক্ষতা এবং সাশ্রয়ী মূল্যের জন্য বিডিতে খুবই পরিচিত। বাংলাদেশে বর্তমানে টয়োটা করোলা বহুমুখী এবং নির্ভরযোগ্য গাড়ি হওয়ায় তরুণ থেকে শুরু করে পেশাদার চালকদের কাছে জনপ্রিয় গাড়ি।

টয়োটা করোলা গাড়ির বিশেষত্ব কি কি?

টয়োটা করোলা নির্ভরযোগ্য, জ্বালানি-সাশ্রয়ী, নিরাপদ এবং সাশ্রয়ী মূল্যের গাড়ি যা চালকের প্রয়োজন অনুসারে বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করে থাকে।

১। এডভান্স ইঞ্জিনঃ টয়োটা করোলা গাড়ি সাধারণত চার-সিলিন্ডার ইঞ্জিন দিয়ে তৈরি করা হয়েছে। ফলে এই গাড়ি ব্যবহারে ভালো জ্বালানী দক্ষতা এবং নির্ভরযোগ্য কর্মক্ষমতা প্রদান করে।

২। ট্রান্সমিশন সিস্টেমঃ টয়োটা করোলা গাড়ি মূলত ক্রমাগত পরিবর্তনশীল ট্রান্সমিশন (সিভিটি) এর ব্যবহার করে থাকে। ফলে এই গাড়ি ব্যবহারে মসৃণ ত্বরণ এবং উন্নত জ্বালানী দক্ষতা প্রদান করে থাকে।

৩। নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্যঃ টয়োটা করোলা গাড়ি উন্নত সুরক্ষা সিস্টেমের জন্য খুবই পরিচিত। যার মধ্যে অ্যাডাপ্টিভ ক্রুজ কন্ট্রোল, স্টিয়ারিং অ্যাসিস্ট্যান্ট, লেন চেঞ্জিং এলার্ট, পথচারীদের সনাক্তকরণের সাথে স্বয়ংক্রিয় জরুরী ব্রেকিং সিস্টেম এবং রিয়ারভিউ ক্যামেরা সংযুক্ত রয়েছে। তাই টয়োটা করোলা গাড়ি চালাকদের উন্নত ড্রাইভিং অভিজ্ঞতা প্রদান করার পাশাপাশি নিরাপদ রাখতে সহায়তা করবে।  

৪। জ্বালানী দক্ষতাঃ টয়োটা করোলা গাড়িটির ইঞ্জিন পরিচালনা করার জন্য রয়েছে হাইব্রিড, স্পোর্ট-টিউনড সাসপেনশন এবং প্যাডেল শিফটার ডিজাইনে তৈরি করা হয়েছে। ফলে ফুয়েল, গ্যাসের পাশাপাশি বৈদ্যুতিক শক্তি ব্যবহার করে চালানো যাবে। করোলা গাড়ি যথেষ্ট জ্বালানী সাশ্রয়ী, প্রতি লিটার ফুয়েলে প্রায় ১৪কিমি মাইলেজ অতিক্রম করতে পারে।

৫। আরাম এবং সুবিধাঃ ড্রাইভিং এ অনন্য অভিজ্ঞতা প্রদানের জন্য টয়োটা করোলা গাড়ি উন্নত প্রযুক্তি ও আরামদায়ক ডিজাইনে তৈরি করা হয়েছে। এমনকি করোলা গাড়িতে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা, পাওয়ার-অ্যাডজাস্টেবল ড্রাইভিং সিট, সামনে উত্তপ্ত আসন, চাবি ছাড়া গাড়িতে প্রবেশ ইত্যাদি সুবিধা রয়েছে।

৬। মাল্টিমিডিয়া সিস্টেমঃ টয়োটা করোলা গাড়িতে ইনফোটেইনমেন্ট সিস্টেমের রয়েছে যার মধ্যে টাচস্ক্রিন ডিসপ্লে, ব্লুটুথ সংযোগ, অ্যাপল কারপ্লে এবং অ্যান্ড্রয়েড অটো কম্প্যাটাবিলিটি এবং ইউএসবি পোর্ট পাওয়া যাবে।

৭। অভ্যন্তরীণ এবং বাহ্যিক ডিজাইনঃ ব্যবহারকারীদের জন্য আরামদায়ক এবং আধুনিক সুবিধা প্রদানের জন্য টয়োটা করোলা গাড়ি ভিতরে এবং বাইরে প্রিমিয়াম উপকরণ এবং বিভিন্ন রঙ ব্যবহারে ডিজাইন করা হয়েছে। ফলে করোলা গাড়ির বাহ্যিক দিক থেকে দেখতে খুবই মসৃণ এবং আসন বিন্যাস ও গাড়ির ভেতরের পরিবেশ খুবই আকর্ষণীয়।

এছাড়াও, টয়োটা করোলা গাড়িতে সেফটি সেন্স ২.০ এর মতো উন্নত প্রযুক্তি সহ পথচারীদের সনাক্তকরণ, প্রি-কলিশন, স্টিয়ারিং অ্যাসিস্ট্যান্ট, লেন চেঞ্জিং এলার্ট এবং গতিশীল রাডার ক্রুজ কন্ট্রোল সিস্টেম রয়েছে।

বাংলাদেশে টয়োটা করোলা গাড়ির দাম কত?

বাংলাদেশে ব্যবহৃত এবং রিকন্ডিশন উভয় ধরনের টয়োটা করোলা গাড়ি পাওয়া যায়। বর্তমানে বাংলাদেশে টয়োটা করোলা গাড়ীর দাম ১১,৪০,০০০ টাকা থেকে শুরু যা ব্যবহৃত গাড়ি এবং ইঞ্জিন ক্যাপাসিটি ১৫০০ সিসি হয়ে থাকে। এছাড়াও, গাড়ির মডেল, ডিজাইন এর পাশাপাশি প্রি-কলিশন সিস্টেম, অ্যাডাপ্টিভ ক্রুজ কন্ট্রোল, স্টিয়ারিং অ্যাসিস্ট্যান্ট, লেন চেঞ্জিং এলার্ট ও রিয়ারভিউ ক্যামেরা সহ উন্নত প্রযুক্তি উপর ভিত্তি করে বিডিতে টয়োটা করোলা গাড়ীর দামের পার্থক্য হয়ে থাকে। তবে, বর্তমানে বাংলাদেশে ১৮০০ সিসি ক্যাপাসিটি, হাইব্রিড ইঞ্জিন, ৫ আসন বিশিষ্ট রিকন্ডিশন টয়োটা করোলা গাড়ির দাম ৩৪,০০,০০০ টাকা থেকে শুরু।