bdstall.com

স্মার্ট টিভির দাম ২০২২

বাংলাদেশের সেরা স্মার্ট টিভি এর মূল্য তালিকা August, 2022

স্মার্ট টিভি মডেল বাংলাদেশে দাম
Sony Plus 32" Full HD Flat LED Television ৳ ৭,৪৯৯
Samsung Q80A 65" 4K HDR 12X Smart QLED TV ৳ ১৮৮,০০০
Xiaomi Mi V57R 43" 4K Smart LED Android TV ৳ ৩৯,৯৯৯
Samsung Q60A Series 85" QLED 4K Smart Television ৳ ৩২৯,৯৯৯
China 40" Ultra Slim Android TV ৳ ১৫,৮৯৯
Sony Plus 32" Android Double Glass HD LED TV ৳ ৯,৯৯০
LG NANO79 NanoCell 55" 4K HDR WebOS Smart Television ৳ ৮৬,০০০
LG C1 55'' OLED 4K TV ৳ ১৬৪,৯৯৯
Sony Pro 32" Double Glass Android TV ৳ ১১,৮৯০
JVCO 32" Smart Borderless Voice Control TV ৳ ১৩,৯৯০

যুগ পরবর্তনের ফলে এখন বাজারে এসেছে উন্নত প্রযুক্তি সম্পন্ন টিভি যেটি স্মার্ট টিভি হিসাবে পরিচিত। ক্যাবলে টিভি সংযোগের পাশাপাশি স্মার্ট টিভিতে এখন ইন্টারনেট সংযোগও আছে ফলে এটি দিয়ে টিভি দেখার পাশাপাশি অনেক ধরনের কাজ করা যায়। এছাড়াও সবরকমের যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করার মতো সুবিধা আছে স্মার্ট টিভিতে। এসকল বৈশিষ্টের জন্য স্মার্ট টিভির চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে আর বাংলাদেশে এটির দাম আগের তুলনায় এখন অনেক কম। তবে স্মার্ট টিভি কেনার আগে কিছু টিপস জানা আবশ্যক যেমনঃ

১। টিভির সাইজঃ স্মার্ট টিভি কেনার আগে অবশ্যই দেখতে হবে স্মার্ট টিভির আকার কারন এটি যত বড় হবে তত ভাল। তবে কত দুরত্ব থেকে টিভি দেখবেন এর উপর ভিত্তি করে সাইজ নির্বাচন করা উচিত। বাংলাদেশে বেশিরভাগ পরিবারে খুব কম দূরত্ত থেকে টিভি দেখা হয় তাই ৩২-৩৬ ইঞ্চির টিভি যথেষ্ট হবে। আবার রুম বড় হলে রুম স্পেস অনুযায়ী বড় স্মার্ট টেলিভিশন ব্যবহার করা যাবে।

২। বাজেটঃ বর্তমানে স্মার্ট টিভির দাম এখন অনেক কম কারন অনেক কোম্পানি এটি তৈরী করছে। স্মার্ট টিভির দাম বাংলাদেশে ৬,০০০ টাকা থেকে যেটি এইচডি রিসোলিউশন দিবে আর স্মার্ট টিভির সকল সুবিধা থাকছেই। আর স্ক্রিন হবে ২৪ থেকে ৩২ ইঞ্চি। যদি নামি ব্রান্ডের স্মার্ট টিভি কিনেন থাকে বাংলাদেশে দাম পড়বে ২৪,০০০ টাকা যার স্ক্রিন সাইজ হবে ৩২ ইঞ্চি তবে উন্নমানের এইচডি পিকচার দিবে। ৪৩ ইঞ্চি স্মার্ট টিভির দাম প্রস্তুতকারক ভেদে ২৫,০০০ টাকা থেকে ৩৫,০০০ টাকা। ৫৫ ইঞ্চি স্মার্ট টিভির দাম সর্বনিম্ন ৪০,০০০ টাকা এবং স্ক্রিন জট বড় হবে দাম তত বেশি হবে। তাই, বিডি স্টলের স্মার্ট টিভির তালিকা দেখে সর্বনিম্ন দামে পছন্দসই টিভি কিনে নিন।

৩। রেজোলিউশনঃ স্মার্ট টিভির ডিসপ্লে রেজুলেশন কেমন হবে সে দিকটি লক্ষ্য রাখা জরুরী। স্মার্ট টিভির ছবি বা ভিডিওর কোয়ালিটি নির্ভর করবে টিভির রেজুলেশনের উপর। বর্তমান বাজারে এলইডি এবং ওলেড প্রযুক্তি ব্যবহৃত স্মার্ট টিভির চাহিদা প্রচুর। কয়েক রেজুলেশনের স্মার্ট টিভি বাংলাদেশে পাওয়া যায় যেমন এইচডি, ফুল এইচডি, আল্ট্রা এইচডি। তাই রেজুলেশন সম্পর্কে পূর্ণাঙ্গ ধারণা রেখে স্মার্ট টিভি কেনা উচিত।

৪। সাউন্ড সিস্টেমঃ ছবি বা ভিডিও কোয়ালিটির পাশাপাশি অবশ্যই স্মার্ট টিভির সাউন্ড সিস্টেম দেখতে হবে। উচ্চ মানের সাউন্ড সিস্টেম সম্পন্ন স্মার্ট টিভি নির্বাচন করা জরুরী। ডলবি ডিজিটাল  সিস্টেম, স্টেরিও সাউন্ড সিস্টেম বা আরও অনেক অডিও স্পীকার আছে বাজারে। তবে ডলবি ডিজিটাল সাউন্ড সিস্টেম এবং স্টেরিও সাউন্ড সিস্টেম বাংলাদেশে বেশি জনপ্রীয়। স্মার্ট টেলিভিশনের সাউন্ড সিস্টেম ভালো হলে আলাদা করে কোনো সাউন্ড সিস্টেম কেনার দরকার হয় না।

৫। প্রসেসরঃ স্মার্ট টিভির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হলো এর প্রসেসর। প্রসেসর শক্তিশালী হলে স্মার্ট টিভির ক্ষমতা ও গতি বৃদ্ধি পাবে। স্মার্ট টিভির প্রসেসরের সাহায্যে বিভিন্ন সফটওয়্যার ব্যবহার, গেম খেলা সহ আরও অনেক কিছু করা যাবে। তাই স্মার্ট টিভি কেনার আগে ভালো প্রসেসর পছন্দের স্মার্ট টিভিতে ব্যবহার করা হয়েছে কিনা সেটি যাচাই করতে হবে।

৬। কন্ট্রোলারঃ কন্ট্রোলার ফিচারকে অবশ্যই প্রাধান্য দিতে হবে যেকোনো স্মার্ট টিভি কেনার আগে। অধিক ফাংশন সম্পন্ন রিমোট কন্ট্রোলের পাশাপাশি এখন ভয়েজ কন্ট্রোল টিভির চাহিদাও অনেক। তাই স্মার্ট টিভি কেনার আগে কন্ট্রোলিং সিস্টেম কেমন তা দেখা জরুরী।

৭। সংযোগ ও স্টোরেজঃ বর্তমান যুগে আধুনিক সংযোগের এবং কন্টেন্ট সংরুক্ষনের জন্য স্মার্ট টিভিতে স্টোরেজ থাকা আবশ্যক। স্মার্ট টিভিতে এইচডিএমআই, ল্যান, ইউএসবি সংযোগ আছে কিনা দেখে নিন। আর ভাল হয় যদি ওয়াইফাই সংযোগ থাকে। স্মার্ট টিভির মাধ্যমে ইন্টারনেট ব্রাউজিং, অনলাইনে গেম খেলা, ইউটউব ভিডিও, মেসেজিং সহজে করা যায় এদিকে লক্ষ্য থাকা উচিত। আবার যেকোনো কন্টেন্ট যেন খুব সহজে সংরক্ষন করা যায় সেই সুবিধা আছে কিনা জেনে নিন।