bdstall.com

অ্যান্ড্রয়েড টিভির দাম ২০২৩ & ২০২৪

আইটেম ১-২০ এর ২৪৫

অ্যান্ড্রয়েড টিভির আধুনিক সব বৈশিষ্ট্যের কারণে বর্তমান আধুনিক বিশ্বে মানুষের চাহিদার শীর্ষে অবস্থান করছে। অ্যান্ড্রয়েড টিভির মাধ্যমে পছন্দের সকল ভিডিও খুব সহজেই অনলাইনে সার্চ করে উপভোগ করা যায়। তাছাড়া, অ্যান্ড্রয়েড টিভিতে বিভিন্ন টেকনোলজি ব্যবহার করা হয় যা টিভি দেখাকে আরো উপভোগীয় করে তোলে।

অ্যান্ড্রয়েড টিভির প্রধান বৈশিষ্ট্য কি?

অ্যান্ড্রয়েড টেলিভিশনের বিশেষ কিছু বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে আলোচনা করা হলঃ

অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমঃ অ্যান্ড্রয়েড টিভির প্রধান বৈশিষ্ট্য হল এতে অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম থাকে। অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম থাকে বিধায় এই টিভি গুলোতে বেশিরভাগ অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস চালানো যায়। ফলে সব ধরনের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের জন্য অ্যান্ড্রয়েড টিভি ব্যবহার করা যায়। তাছাড়া অ্যান্ড্রয়েড টিভিতে র‍্যামের সাথে উপযোগী সব ধরনের ভিডিও গেম খেলা যায়। তবে, গেমস খেলার জন্য আলাদা গেম কোন্ট্রোলার প্রয়োজন হয়।

এইচডিআর টেকনোলোজিঃ এইচডিআর টেকনোলোজি ভিডিওর কালার উন্নত করার জন্য কাজ করে। এই টেকনোলোজি সম্পূর্ণ ভিডিওতে অতিরিক্ত উজ্জ্বলতা যোগ করে ও কালার পরিষ্কার করে দেয়।

ভয়েস সার্চ রিমোটঃ বেশিরভাগ অ্যান্ড্রয়েড টিভির সাথে ভয়েস সার্চ রিমোট থাকে যা গুগল ভয়েস সার্চ অপশন ব্যবহার করতে সহায়তা করে। এই রিমোটের মাধ্যমে যেকোন অডিও ও ভিডিও সহজেই কথা বলার মাধ্যমে খুঁজে বের করা যায় ও উপভোগ করা যায়।

রেসপন্স টাইমঃ অ্যান্ড্রয়েড টিভি গুলোতে রেসপন্স টাইম তুলনামূলক কম থাকে বিধায় উচ্চ রেজোলিউশন ভিডিও দেখতে কোন অসুবিধা হয় না। সাধারণত বেশিরভাগ অ্যান্ড্রয়েড টিভির রেসপন্স টাইম ২-মিলিসেকেন্ড থেকে ৫-মিলিসেকেন্ড পর্যন্ত হয়ে থাকে।

রিফ্রেশ রেটঃ রিফ্রেশ রেট মূলত প্রতি সেকেন্ডে কত গুলো ইমেজ টেলিভিশন পর্দায় প্রদর্শিত হচ্ছে তাকে বোঝায়। রিফ্রেশ রেট যত বেশি হবে তত বেশি হাই রেজোলিউশন ভিডিও খুব সহজেই উপভোগ করা যাবে। আর, অ্যান্ড্রয়েড টিভিতে রিফ্রেশ রেট তুলনামূলক বেশি হয়ে থাকে।

বাংলাদেশে কোন ব্রান্ডের অ্যান্ড্রয়েড টিভি পাওয়া যায়?

বাংলাদেশে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের অ্যান্ড্রয়েড টিভি পাওয়া যায়। তার মধ্যে জনপ্রিয় ব্র্যান্ড গুলো হলোঃ স্যামসাং, সনি, এলজি, হায়ার, ও প্যানাসনিক। বর্তমানে বাংলাদেশে কিছু চায়না ব্র্যান্ডের টিভি পাওয়া যায়। যেগুলো দামে কম ও মানে ভালো হয়ে থাকে। ব্র্যান্ড গুলো হলঃ ট্রিটন, জেভিসিও, সনি প্লাস, ভেজিও, মেংগো, ভিউ ওয়ান, ও ওলিভ।

বাংলাদেশে অ্যান্ড্রয়েড টিভির দাম কত?

বাংলাদেশে ব্র্যান্ড, সাইজ, প্যানেল, ও রেজোলিউশনের উপর ভিত্তি করে অ্যান্ড্রয়েড টিভির দামে তারতম্য হয়ে থাকে। বাংলাদেশে ২৪-ইঞ্চি অ্যান্ড্রয়েড টিভি ৫,৯৯০ টাকা থেকে ৮,৫০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যায়। আবার, ৩২-ইঞ্চি ও ৪০-ইঞ্চি অ্যান্ড্রয়েড টিভি গুলো ১০,০০০ টাকা থেকে ৩৭,০০০ টাকা পর্যন্ত পাওয়া যায়। এবং, ৪৩-ইঞ্চি অ্যান্ড্রয়েড টিভি গুলো ১৭,০০০ টাকা থেকে ৭৪,০০০ টাকার মধ্যে হয়ে থাকে। ৫০-ইঞ্চি অ্যান্ড্রয়েড টিভি গুলো ২৬,০০০ টাক থেকে ৮০,০০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যায়। পরবর্তী ধাপ থেকে অ্যান্ড্রয়েড টিভির দাম তুলনামূলক বেশি হয়ে থাকে। ৫৫-ইঞ্চি অ্যান্ড্রয়েড টিভি গুলো ৩৭,০০০ টাকা থেকে ২,৭৫,০০০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। ৬৫-ইঞ্চি অ্যান্ড্রয়েড টিভি গুলো ৪৭,০০০ টাকা থেকে ৩,৮৫,০০০ টাকা পর্যন্ত পাওয়া যায়। ৭৫-ইঞ্চি অ্যান্ড্রয়েড টিভি গুলো ৮০,০০০ টাকা থেকে ৫,১০,০০০ টাকা পর্যন্ত হয়। এবং ৮৫-ইঞ্চি অ্যান্ড্রয়েড টিভি গুলো ২,৮৭,০০০ টাকা থেকে ৯,৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে।

বাংলাদেশে জনপ্রিয় অ্যান্ড্রয়েড টিভির সিরিজ কোনগুলো?

বর্তমানে বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে অ্যান্ড্রয়েড টিভির বেশ কিছু সিরিজের জনপ্রিয়তা অধিক লক্ষনীয়। জনপ্রিয় টিভি সিরিজ গুলো উল্লেখ করা হলঃ

  • সনি ব্রাভিয়া সিরিজ অ্যান্ড্রয়েড টিভি
  • শাওমি এমআই কিউ১ সিরিজ অ্যান্ড্রয়েড টিভি
  • শাওমি এমআই ৪এক্স সিরিজ অ্যান্ড্রয়েড টিভি
  • শাওমি এমআই পি১ সিরিজ অ্যান্ড্রয়েড টিভি
  • স্যামসাং এইউ৮১০০ সিরিজ অ্যান্ড্রয়েড টিভি

বাংলাদেশের সেরা অ্যান্ড্রয়েড টিভি এর মূল্য তালিকা February, 2024

অ্যান্ড্রয়েড টিভি মডেল বাংলাদেশে দাম
Redmi Smart TV ৳ ৭৭,৯৯৯
Vision RN1 Galaxy Pro 43" 4K LED Google TV ৳ ৩৬,৪০০
Xiaomi Mi A Pro 55" Ultra HD Android Google TV ৳ ৬১,০০০
Xiaomi Mi A Pro 32" Google Android TV ৳ ২৩,৫০০
Xiaomi Mi A Pro 65" Ultra HD Android Google TV ৳ ৮২,৫০০
OnePlus Y1G 32" Full HD LED Android TV ৳ ১৭,৯৯০
Xiaomi Redmi Max 86" Smart TV ৳ ২৭৭,০০০
Sony Plus 43SM 43-inch Frameless Android TV ৳ ১৭,৯৯০
Samsung Q70C 65" 4K QLED Smart TV ৳ ১১৪,৯৯৯
Samsung QN90C 55" 4K Smart Neo QLED TV ৳ ১৮৪,৯৯৯