bdstall.com

প্রসেসর কি ? ইনটেল (Intel) এবং এএমডি (AMD) প্রসেসর এর বিস্তারিত

কম্পিউটার এর যে যন্ত্রটি অপারেটিং সিস্টেম (ওএস) এর মাধ্যমে তথ্য ও উপাত্ত প্রক্রিয়াকরণের কাজ করে, তাকেই প্রসেসর বলে। বাংলাদেশে শুধুমাত্র দুইটি কোম্পানি প্রসেসর বাজারজাত করে, সেগুলো হল ইনটেল এবং এএমডি। ইনটেল এবং এএমডি প্রসেসর এর বিভিন্ন ভার্সন নিচে দেয়া হল।

 

প্রসেসর এর বর্তমান মূল্য 

 

 ইনটেল প্রসেসর

 

 ইনটেল বর্তমান বাজারে প্রচলিত এবং বহুল ব্যবহারিত প্রসেসর। ইনটেল প্রসেসর এর জনপ্রিয় সিরিজ :

 


অ্যাটম : ইনটেল অ্যাটম ২০১২ তে বাজার এ এসেছে। এটি সাধারনত নোটবুক এবং মিনি কম্পিউটারে ব্যবহার করা হয়। গ্রাফিক্স এর কাজ এর জন্য অথবা গেমিং এর জন্য এগুলো ভাল নয়। 

 

সেলেরন : সেলেরন, সেলেরন ডি, সেলেরন ডুয়াল-কোর, সেলেরন জি, সেলেরন জে। এই সিরিজ এর প্রসেসর গুলো ২০০৭ থেকে ২০১৮ সাল এর মধ্যে বিভিন্ন সময় বাজারে এসেছে। সাধারন কাজ এর জন্য এই প্রসেসর গুলো খুবই উপযোগী।

 

পেন্টিয়াম : পেন্টিয়াম, পেন্টিয়াম-৪, পেন্টিয়াম ডি, পেন্টিয়াম  ডুয়াল-কোর, পেন্টিয়াম এক্সট্রিম সিরিজ, পেন্টিয়াম জি, পেন্টিয়াম গোল্ড, পেন্টিয়াম-২, পেন্টিয়াম-৩, পেন্টিয়াম জে। এই সিরিজ এর প্রসেসর গুলো ১৯৯৪ থেকে ২০১৮ সাল এর মধ্যে বিভিন্ন সময় বাজার এ এসেছে।   

 

কোর মাইক্রো আর্কিটেক্টার : এই সিরিজ এর প্রসেসর হল কোর ২ সল,কোর ২ ডুও,কোর ২ কুয়াড,কোর ২ এক্সট্রিম। এই সিরিজ এর প্রসেসর অনেক আগে ব্যবহার করা হত। এই সিরিজ এর প্রসেসর গুলো ২০০৮ থেকে ২০১০ সাল এর মধ্যে বিভিন্ন সময় বাজার এ এসেছে। সাধারন কাজ এর জন্য এই প্রসেসর গুলো খুবই উপযোগী।

 

জিওন : জিওন, জিওন ই-৩ সিরিজ, জিওন ই-৫ সিরিজ, জিওন ই-৫ ভি-২ সিরিজ, জিওন ই-৫ ভি-৩ সিরিজ, জিওন ই-৫ ভি-৪ সিরিজ, জিওন ই-৭ সিরিজ। এই সিরিজ এর প্রসেসর গুলো ২০১১ থেকে ২০১৫ সাল এর মধ্যে বিভিন্ন সময় বাজার এ এসেছে। এই সিরিজ এর প্রসেসর গুলা সার্ভার এর জন্য খুব উপযোগী।

 

ইনটেল প্রসেসর এর বর্তমান মূল্য

 

ইনটেল এর সর্বশেষ কিছু প্রসেসর :

 

কোর আই ৩ : কোর আই-৩ প্রসেসর এর কাজ করার গতি বেশ ভালো, যা ১.৩ গিগাহার্জ থেকে ৩.৫ গিগাহার্জ পর্যন্ত, এবং এতে ৩ বা ৪ এমবি ক্যাশ রয়েছে। ইন্টারনেট ব্রাউজিং, সিনেমা দেখার জন্য এবং দৈনন্দিন ব্যবহারের জন্য এবং সাধারণ কাজ করার জন্য উপযুক্ত।

 

কোর আই ৫ : ইন্টেল কোর আই৫-৭০০ এবং আই৫-৬০০ প্রসেসর সিরিজটি ইন্টেল টার্বো বুস্ট প্রযুক্তি ব্যবহার করে। এতে ৮ এমবি পর্যন্ত ক্যাশ রয়েছে। গেমিং ফটো এবং এডিটিং এর জন্য এটি বেশ ভাল। 

 

কোর আই ৭ :  ইন্টেল কোর আই ৭ একটি উচ্চ মান এর  প্রসেসর। ডেটা ক্র্যাচিং, গ্রাফিক্স এবং ভিডিও সম্পাদনা এবং পিসি গেমিং এর মতো কিছু নিবিড় কাজগুলির জন্য আই ৫ প্রসেসরগুলির চেয়ে বেশি উপযুক্ত। আই ৭ প্রসেসরগুলির মধ্যে একটি বড় ক্যাশ, হাইপার-থ্রেডিং এবং উচ্চ ক্লক রেট রয়েছে। ইন্টেল কোর আই ৭ প্রসেসর উচ্চতর গেমিং, অডিও ভিডিও সম্পাদনা, প্রোগ্রামিং এবং অ্যাপ্লিকেশনের জন্য শক্তিশালী, উন্নত এবং আদর্শ প্রসেসর।

 

কোর আই ৩, আই ৫, আই ৭ আবার অনেক জেনারেশনে বিভক্ত যেমন - প্রথম জেনারেশন, দ্বিতীয় জেনারেশন, তৃতীয় জেনারেশন, চতুর্থ জেনারেশন, পঞ্চম জেনারেশন, ষষ্ঠ জেনারেশন, সপ্তম জেনারেশন, অষ্টম জেনারেশন, নবম জেনারেশন। এই সিরিজ এর প্রসেসর গুলো ২০০৮ থেকে ২০১৯  সাল এর মধ্যে বিভিন্ন সময় বাজারে এসেছে।

 

 

এএমডি বা অরজিনেটেড আর্কিটেক্টারস প্রসেসর

 

ইন্টেল প্রসেসর এর মতো এএমডি প্রসেসর বর্তমানে খুবই জনপ্রিয়। এএমডি প্রসেসর এর কাজ করার দক্ষতা ইনটেল থেকে কোন অংশে কম নয়। বরং কাজের দিক থেকে একটু এগিয়ে। এএমডি প্রসেসর ডেক্সটপ এর জন্য বেশি ব্যাবহারিত হয়। এএমডি প্রসেসরের বিভিন্ন সিরিজ :

   

এএমডি প্রসেসর এর বর্তমান মূল্য 

        

এএমডি রাইযেন গেমিং, স্ট্রিমিং, চতুর যন্ত্র বুদ্ধিমত্তা এবং উন্নত প্রক্রিয়াকরণের সাথে ভিআর এর জন্য একটি উচ্চ-কার্যক্ষম প্রসেসর।

 

এএমডি রাইযেন-৩ প্রসেসর: কুয়াড কোর উন্নত ভেগা গ্রাফিক্স দ্বারা নির্মিত ১০ মেগাবাইট পর্যন্ত ক্যাশ রয়েছে। সাধারন কাজ এ ব্যবহার এর জন্য এটি খুব ভাল একটি প্রসেসর। 

 

এএমডি রাইযেন-৫ প্রসেসর: শক্তিশালী ৪ থেকে ৬ কোর এর প্রসেসর যার প্রসেসিং থ্রেড ১২ এবং ১৯ মেগাবাইট পর্যন্ত ক্যাশ রয়েছে। গেমিং এবং গ্রাফিক্স এর জন্য এটি বেশ ভাল। 

 

এএমডি রাইযেন-৭ প্রসেসর: এটি ৮ কোর এর প্রসেসর যার প্রসেসিং থ্রেড ১৬ এবং ২০ মেগাবাইট পর্যন্ত ক্যাশ রয়েছে। গেম, কন্টেন্ট সৃষ্টি, এবং নিবিড় মাল্টি-টাস্কিং কর্মক্ষমতা সম্পন্ন উন্নতমানের প্রসেসর। 

 

এএমডি রাইযেন থ্রেডরিপার প্রসেসর: এটি ৩২ কোর এর প্রসেসর যার প্রসেসিং থ্রেড ৬৪ এবং ৮০ মেগাবাইট পর্যন্ত ক্যাশ রয়েছে। গেমিং, গ্রাফিক্স সহ যে কোন কাজ এ ব্যবহার এর জন্য বাজারে প্রাপ্ত সবচেয়ে উন্নতমানের প্রসেসর।

 

ইনটেল খুব ভাল মান এর প্রসেসর কিন্তু এএমডি ইন্টেলের চেয়ে সস্তা। গেমারদের জন্য বড় সুবিধা হল স্বল্প দামে ভালো মানের এএমডি প্রসেসর কিনতে পাওয়া যায়। তাছাড়া গ্রাফিক্স এর জন্য এএমডি প্রসেসর খুব ভালো। এএমডি প্রসেসর মালওয়্যার সনাক্ত করতে পারে। ৬৪ বিট অ্যাপলিকেশন হ্যান্ডলিং এর জন্য এএমডি প্রসেসর খুবই উপযোগী।

 

প্রসেসর এর বর্তমান মূল্য