bdstall.com

কম দামে সেরা ১০টি স্মার্ট টিভি

May 19, 2022

স্মার্ট টিভি আজকাল কমবেশি সবারই পছন্দের একটি জিনিস। বিনোদন ছাড়া যেমন আমাদের দৈনন্দিন জীবনে একঘেয়েমি চলে আসে তেমনি টিভির স্কিন যদি এইচডি না হয় তবে চোখের সমস্যার পাশাপাশি যে কোন অনুষ্ঠান উপভোগ করতেও ভালো না লাগে।  আমরা কয়েকটি অল্প বাজেট রেঞ্জের মধ্যে সেরা স্মার্ট টিভি নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। নিম্নে আমরা ৭,৫০০ থেকে ৫৫,০০০ টাকা বাজেট রেঞ্জ মধ্যে সেরা দশটি টিভির তালিকা দেওয়া হলো। 

 

 

১। ভিউওয়ান 24 ইঞ্চি ফুল এইচডি এলইডি টিভি

চায়না ব্র্যান্ড টিভি এর মধ্যে বর্তমান সময়ে ভিউ ওয়ান টিভি এর ভালো সুনাম রয়েছে। এই ধরনের টিভি ব্র্যান্ডের মধ্যে ভিউ ওয়ান দিচ্ছে সবচেয়ে কমদামে স্মার্ট এলইডি  টিভি। কম দামে ভাল টিভির মধ্যে আমাদের পছন্দের তালিকার প্রথম টিভিটি হচ্ছে ভিউওয়ান 24" ফুল এইচডি ইউএসবি টেলিভিশন। এই টিভির বর্তমান দাম ৭,০০০ - ৭,৫০০ টাকার মধ্যে। সেই সাথে টিভিটির মধ্যে থাকছে হাইডাইনামিক রেঞ্জের ব্রাইটনেস, বিল্ট ইন স্পিকার সাউন্ড কোয়ালিটি যা আপনার কানের কোন ক্ষতি করবেনা। আরও থাকছে ১০৮০ পিক্সেলের রেসুলেশনের পিকচার কোয়ালিটি, ৬ মিনিটের রেসপন্স টাইম এবং ভিজিএ / এইচডিএমএল / ইউএসবি / এভি টিভির মতো ইন্টারফেস। আর সব থেকে বড় ব্যাপার এই টিভিটিকে ১৭৯ ডিগ্রি এঙ্গেল পযর্ন্ত যাবে।

 

 

 

 

২। অলিভ ৩২ ইঞ্চি বর্ডালেস ভয়েস কন্ট্রোল এলইডি টিভি

যাদে বাজেট আট থেকে দশ হাজারের মধ্যে তেদের জন্য চায়না টিভি সবচেয়ে ভালো। অল্প বাজেটের মধ্যে পছন্দের তালিকার মধ্যে রাখা যেতে পারে চায়ানা অলিভ ৩২ ইঞ্চির বর্ডলেস ভয়েস ওভার কন্ট্রোল এলইডি টিভিটি। অলিভ টিভি এর মধ্যে থাকছে 32 ইঞ্চির ১০৮০ পিক্সেলের রেজ্যুলেশনের ফ্ল্যাট ডিসপ্লে, ইউএসবি পোর্ট, এইচডিএমএল কানেকটিভিটি, , ১ জিবি র‍্যাম, ৮ জিবি রম এবং ভয়েস ওভার কন্ট্রোল ফিচার। এই টিভি তে হেডফোন জ্যাক থাকায় হেডফোন দিয়েও যে কোন ধরণের অনুষ্ঠান উপভোগ করতে পারবেন। এছাড়াও এটি যে কোন ফাইল ফর্মেটে তোলা যে কোন ছবি ক্লিন রেস্যুলেশনে প্রদর্শন করে থাকে।

 

 

 

 

 

৩। স্যামসাং N4010 32 ইঞ্চি স্মার্ট টিভি

স্যামসাং ব্র্যান্ডের মধ্যে সবচেয়ে কমদামের মধ্যে একটি এলইডি টিভির হচ্ছে N4010। যদি আপনার মোটামুটি তের থেকে চৌদ্দ হাজার টাকা বাজেট হয়ে থাকে তাহলে N4010 মডেলটি কম দামে স্যামসাং টিভি কিনতে পারবেন। কেননা স্যামসাং মানেই ক্লিন পিকচার কোয়ালিটি সাথে তো ফুল এইচডি সাপোর্ট রেস্যুলেশন 1366×768p তো থাকছেই। এছাড়াও এতে আছে 3D টেকনোলজি, 5m রেসপন্স টাইম, এনালগ এবং ডিজিটাল টিভি টিউনার, 10 ওয়াটের স্পিকার আউটপুট, এসি 200-240 ভোল্টের হাই স্পিড পাওয়ার। আর 32" ইঞ্চির এই এলইডি টিভিটি যে কোন স্থানেই সহজেই ফিট করা যায় কোন প্রকার ঝামেলা ছাড়াই।

 

 

 

 

 

৪। JVCO DE2LSM 32 অ্যান্ড্রয়েড স্মার্ট টিভি

JVCO DE2LSM 32" একটি স্মার্ট ভয়েস কন্ট্রোল টেলিভিশন। এই টিভিতে অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম 10 দেওয়া আছে। এর জন্য যে কোন ধরনের সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং অ্যাপস, যেমন, Facebook, মেসেঞ্জার ও YouTube সহ সকল ধরনের প্লেয়ার অন্তর্ভুক্ত করে ব্যবহার করা যায়৷ এছাড়াও জেভিকো টিভি আরো যে সকল সুবিধা প্রদান করতে পারে তা হচ্ছে স্ক্রিন শেয়ারিং যা ব্যবহারকারীরা যে কোনও স্মার্টফোন থেকে এই টেলিভিশনে স্ক্রিন শেয়ার করে যে কোন কিছু দেখতে বা গেম খেলতে পারবে৷ টিভির মূল ফিচারে আছে 2GB RAM এবং 16GB, স্টোরেজ ডিশ ক্যাবল সংযোগ এবং ওয়াইফাই সাপোর্ট।  

 

 

 

 

 

 

৫। স্যামসাং T4500 32 ইঞ্চি এলইডি টিভি

স্যামসাং ব্র্যান্ডের T4500 মডেলটি পুর্বের টিভি ফিচার ছাড়াও বিশেষ সুবিধা হিসেবে এখানে পাবেন অটো চ্যানেল সার্চ, IPv6 সাপোর্ট, গেমিং মুড, ইকো সেন্সর 220-240V এসি বিদ্যুৎ সাপ্লাই। এছাড়াও কানেকটিভিটির অপশন হিসেবে T4500 টিভিতে আছে 10W+10W সাউণন্ড আউটপুট, ডবলি ডিজিটাল, ডবলি ডিজিটাল প্লাস, এবং ডবলি প্লাস এর মতো সুবিধা। মডেলটির সব থেকে বড় আর্কষণ হচ্ছে এর প্রসেসর। স্যামসাং T4500 তে আপনি প্রসেসর হিসেবে পাচ্ছেন কোয়াড কোর প্রসেসর। যার জন্যে এই টিভিটি হবে অন্যান্য টিভির থেকে অনেক বেশি কার্যকারী। স্যাসাং T4500 টিভির দাম বর্তমান দাম ২৫,৪০০ টাকা।

 

 

 

 

 

৬। সনি ব্রাভিয়া W600D 32 ইঞ্চি Wi-Fi এইচডি টিভি

টিভি এর জগতে সনি একটি জনপ্রিয় ব্র্যান্ডের নাম। সনি টিভি এর মধ্যে অনেক উন্নত মানের প্রযুক্তি যুক্ত থাকায় এর দাম তুলনা মূলক একটু বেশি হয়ে থাকে। অল্প বাজেটের মধ্যে সনির W600D মডেলটিকে কিনতে পারেন যার বর্তমান দাম ২৬,৫০০ টাকা। টিভি এর প্রধান আকর্ষণ হচ্ছে স্ক্রিন মিররোরিং ইফেক্ট, এক্স রিয়েলিটি প্রো ইফেক্ট এবং ওয়েব ব্রাউজিং। সনি ব্রাভিয়া W600D কানেক্টিভিটি ফিচার সমূহ হচ্ছে Wi-Fi, ইউএসবি এবং এইচডিএমআই। এই টিভিটির সাউন্ড কোয়ালিটিও অন্যান্য যে কোন ব্র্যান্ড অধিক উন্নত কেননা এখানে আপনি পাচ্ছেন 5 ওয়াট + 5 ওয়াট অডিও পাওয়ার আউটপূট, যা কানের জন্যেও হবে আরামদায়ক।

 

 

 

 

 

৭। শাওমি 4A ৪০ ইঞ্চি স্মার্ট টিভি

আধুনিক ইলেকট্রনিক্স জগতে শাওমি একটি ব্যপক জনপ্রিয় নাম। শাওমি অন্যান্য ইলেক্ট্রনিক্সের পাশাপাশি বাজারে নিয়ে এসেছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির স্মার্ট টিভি। যদি এন্ড্রোয়েড ফোনের মতো শাওমি স্মার্ট টিভির খোঁজ করে থাকেন, তাহলে বিশ থেকে ত্রিশ হাজার বাজেটের মধ্যে আপনি কিনতে পারেন এই 4A মডেলের টিভি। শাওমি এই টিভি তে  আন্ডোয়েড ভার্শন থাকায় গুগল প্লে স্টোর,ওয়েব ব্রাউজার, ইউটিউব, ফেসবুক, নেটফ্লিক্স সহ সকল ধরনের অনালাইন এবং এপ্সের মতো বিশেষ সুবিধা ভোগ করা যাবে। এছাড়াও পাচ্ছেন ভয়েস ওভার রিমোর্ট কন্ট্রোল, 178-ডিগ্রি কোণে দেখার সুবিধা, 1GB DDR RAM, 8GB স্টোরেজ। শাওমির এই এন্ড্রোয়েড টিভিতে পাবেন 1.5 GHz Cortex-A53 64-বিট কোয়াড-কোর প্রসেসর, অতি-উজ্জ্বল LED ডিসপ্লে, সিনেমাটিক মানের শব্দ, স্টেরিও / DTS অডিও ডিকোডার, PNG / GIF / JPG ইমেজ , DTS-HD অডিও ডিকোডার ছাড়াও আরো অনেক কিছু থকছে।

 

 

 

 

 

৮। শাওমি 4S 43 Inch 4K HDR এলইডি টিভি

যাদের ছোট ডিসপ্লের টেলিভিশন পছন্দ না তাদের জন্য মিড ডিসপ্লের শাওমি 4S 43 Inch টিভিটি হতে পারে বেস্ট চয়েজ। এই স্মার্ট টিভির জন্য বাজেট পূর্বের টিভির চেয়ে কিছুটা বেশি হবে। এই টিভির বর্তমান প্রাইস ৩৪,০০০ টাকার মতো। শাওমি ৪এস টিভি তে আছে এন্ড্রোয়েড ৯.০ ভার্শন, 2 GB RAM, 8GB ROM, ওয়েব ব্রাউজার, 100M LAN, 64-bit Quad-Core processor। পিকচার কোয়ালিটির দিক থেকে পাবেন 3840 x 2160 হাই এইচডি রেজ্যুলেশন, চার ধরণের কন্ট্রোল প্যানেল সিস্টেম, Bluetooth 4.2, কীবোর্ড, স্পীকার, রিমোট কন্ট্রোল, গেমপ্যাড সমর্থন, এবং DVB-T2/C সাপোর্ট সিস্টেম।

 

 

 

 

 

৯। স্যামসাং AU7700 43" ক্রিস্টাল 4K স্মার্ট টিভি

স্যামসাং AU7700 এন্ড্রোয়েড টিভির সাহায্যে ইন্টারন্টের সকল সুযোগ সুবিধা গ্রহণ করা যাবে। এর মাধ্যেম গুগল প্লে স্টোরের সকল অ্যাপ্স ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে। ছাড়াও অনলাইন ভিত্তিক যে সকল চ্যানেল আছে তার সবগুলোই এই টিভির মধ্যে সাপোর্ট করে। এর পাশাপাশি রয়েছে স্মার্ট এ্যাপ, ট্রিপল প্রটেকশন, ওটো হটস্পট কানেক্ট, সাউন্ড মিরোরিং, এনালগ ক্লিন ভিউ, কনট্রেস্ট ইনহেনসার, অটো মোশন প্লাস এবং ফিল্ম মোড, ইকো সেনসরের মতো এন্ড্রোয়েড সুবিধা। এখানে মাল্টি ভয়েস এসিস্টেন্ট ফাংশন আছে যার একটি মাত্র রিমোটের মাধ্যমে কন্ট্রোল করা যাবে। টিভি এর ডিসপ্লে রেজ্যুলেশন 3840 x 2160 পিক্সেল যেখানে ৪কে রেজ্যুলেশনের ভিডিও সাপোর্ট করে এবং ইউজারকে  কাঁচের মতো স্বচ্ছ বাস্তবিক চিত্র উপভোগ করতে সহায়তা করে। 

 

 

 

 

১০. এলজি NanoCell TV ৪৩ ইঞ্চি ফুল এইচডি স্মার্ট টিভি

বর্তমানে টিভি ও মনিটরের দিক থেকে এলজি ব্র্যান্ড অনেক এগিয়ে আছে। এলজি টিভি এর মধ্যে ৪৩ ইঞ্চি ডিসপ্লের টিভি একটি আদর্শ সাইজ বলা চলে। এই সাইজের টিভি অফিস, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও বাসা বাড়ীতে ব্যবহার হচ্ছে অনেক। এলজি NanoCell টিভির সার্ভিস তুলনামূলক অনেক ভালো চলেও দীর্ঘদিন। ন্যানোসেল টিভিতে যে সকল আকর্ষণীয় ফিচার আছে তা হ’লো 178 ডিগ্রি কৌনিক উল্লম্ব/অনুভূমিকভাবে দেখতে পারবেন, যত ইচ্ছে OTT অ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন, ব্লুটুথ সিস্টেম, 2.0-চ্যানেল স্পিকার, এইচজিআইজি গেমিং মোড, এআই অ্যাকোস্টিক টিউনিং সহ আরো অনেক কিছু। LG AI ThinQ প্রযুক্তি গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট এবং অ্যালেক্সার মতো ইন্টিগ্রেটেড ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট ব্যবহার করে সহজেই যে কোন ডিভাইসকে কানেক্ট করে নিয়ন্ত্রণ করা যায়। এলজি ৪৩ ইঞ্চি NanoCell টিভির দাম ৫৫,০০০ টাকা।  

 

 

পরিশেষে

 

যে কোন ব্র্যান্ডের এলইডি টিভি দিয়ে আজকাল মানুষ তাদের দরকারি কাজও করে থাকেন। তাই উপরের সবগুলো ব্র্যান্ডই মোটামুটি ভালো হলেও কেনার ক্ষেত্রে ব্র্যান্ড, পিকচার রেজ্যুলিউশন, সাউন্ড কোয়ালিটি, টিভির সাইজ দেখে নেওয়া জরুরি। তবে টিভির পিকচার কোয়ালিটি ও রেজ্যুলিউশন এর দিকে একটু বেশি খেয়াল রাখা জরুরি কেননা এর উপরেই নির্ভর করছে আপনি ঠিক কতটা ক্লিন ও থ্রিডি পিকচার কোয়ালিটি পাবেন।  

 

Reviews (0) Write a Review